মাত্র ১৬ বছর বয়সে ১৮০০ টাকায় AC বানিয়ে তাক লাগাল একাদশ শ্রেণির ছাত্রী! জাপান সরকারের প্রজেক্টটে ডাক পেলো এই তরুণী

মাত্র ১৬ বছর বয়সে ১৮০০ টাকায় AC বানিয়ে তাক লাগাল একাদশ শ্রেণির ছাত্রী! জাপান সরকারের প্রজেক্টটে ডাক পেলো এই তরুণী- মানুষের দক্ষতা বয়সের ওপর নির্ভর করে না। এক কমবয়সী মানুষও অনেক সময় এমন অনেক কিছু করে , যা অনেক প্রাপ্তবয়স্কেরা কল্পনাও করতে পারে না। যেকোনো কাজ করার জন্য প্রয়োজন ইচ্ছে আর ধৈর্যের। এজন্য বয়স কোনো বিষয় না।

আপনি চাইলেই সেসব কিছু বাস্তবায়িত করতে পারেন যা আপনি কল্পনা করেন। কল্পনাই মানুষকে স্বপ্ন পূরণ করতে আগ্রহী করে তোলে। পৃথিবীতে এমন অনেক মানুষ আছে যাদের ট্যালেন্ট দেখে আমরা অবাক হয়ে যাব। আমাদের দেশেরও অনেক ছোটো ছোটো বাচ্চারা নিজেদের ট্যালেন্ট দেখিয়ে দেশ-বিদেশে নিজেদের নাম অর্জন করেছে। আমরা বড়ো বড়ো শহর বা বড়ো পরিবারের কথা বলছি না।

ছোটো ছোটো গ্রামেও এমন অনেকে আছে যারা নজির গড়েছে। ঠিক এমনই প্রতিভাশালী উত্তর প্রদেশের বাসিন্দা এক 16 বজরের ছাত্রী কল্যাণী শ্রীবাস্তব। কল্যাণী এখন একাদশ শ্রেণীতে পড়ে,কিন্তু সে নিজের গ্রামের মানুষদের কথা ভেবে অল্প খরচে AC তৈরি করেছে। এই AC আবার পরিবেশ-বান্ধব ও। তা বিস্তারিত জানা যাক। সৌরশক্তিতে চলে এই AC এই AC-র সবথেকে বড় বিশেষত্ব হল এই AC সৌরশক্তিতে চলে ।

কল্যাণী এই AC সম্পর্কে বলেছে যে এটিতে থার্মোকল তৈরি একটি আইস-বক্সে 12 ভোল্ট এর DC পাখা দিয়ে হাওয়া দেওয়া হয়। এটা করলে এল্বো থেকে ঠাণ্ডা হাওয়া বাইরে যায়। যদি একঘন্টা এটি চালোনো যায় তাহলে তাপমাত্রা 4-5 ডিগ্ৰি কমে যায় তার জায়গায় শীতল হাওয়া প্রবেশ করে। অনেক কম খরচায় তৈরি এই AC বিদ্যুত বিলের সাশ্রয়ের পাশাপাশি এটি পরিবেশ দূষণ সৃষ্টি করে না।

জাপান থেকে নিমন্ত্রণ- কল্যাণীর এই কাজে না শুধু তার গ্রামের মানুষেরা খুশি হয়েছে, ভারত সরকার ও জাপান সরকারও তার প্রশংসা করেছে। এমনকি জাপান সরকার এই বিষয়ে বিস্তারিত জানতে তাকে নিমন্ত্রণও করেছে।কলেজ কম্পিটিশনে প্রথম প্রদর্শিত হয়- কল্যাণী শ্রীবাস্তব লোকমান্য তিলক ইন্টার কলেজের ছাত্রী। কলেজে চলা এক প্রতিযোগিতায় সে

প্রথম এটি প্রদর্শন করে। প্রথমে কলেজ থেকে সিলেক্ট হওয়ার পর রাজ্যস্তরে এবং পরে কেন্দ্রীয় স্তরেও সে সিলেক্ট হয়। IIT-Delhi থেকেও খুব প্রশংসিত হয় কল্যাণীর তৈরি AC। কম খরচায় গরম থেকে মুক্তি- এই AC যদি বাজারে আসে , তবে বহু মানুষ উপকৃত হবে। কারণ এর দাম মাত্র 1800 টাকা। কল্যাণী গুণের ভাণ্ডার- কল্যাণী প্রথমবার প্রশংসিত হয়নি, এর আগেও অনেক সায়েন্স মডেল তৈরি করে সে প্রশংসিত

হয়েছে। তাকে তার গ্রামে সবাই “ছোটো সাইন্টিস্ট” বলে ডাকে। এছাড়াও টেলিভিশনের রিয়ালিটি শো “Indian Idol”-এও সে অংশগ্রহণ করেছিল। “নারী সম্মান” এ পুরস্কৃত হয় কল্যাণী- UP সরকার দ্বারা আয়োজিত (2018 সালে) “নারী সম্মান” নামক এক অনুষ্ঠানে তাকে পুরস্কৃত করা হয়। কল্যাণীর মতো প্রতিভাবান ছাত্র-ছাত্রীদের উজ্জ্বল ভবিষ্যতের কামনা করি আমরা। অন্যান্য ছাত্র-ছাত্রীরা থেকে অনুপ্রেরণা নিয়ে দেশের নাম উজ্জ্বল করুক এই আমাদের কাম্য।।

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

এছাড়াও পড়ুন

ভুলেও স’ঙ্গম করবেন না এই সময়গুলিতে, ঘটতে পারে মা’রাত্মক বি’পদ

যৌন মিলন নিয়ে একেক জনের একেক রকমের মতামত রয়েছে। সঙ্গমের কোন সময়টা ঠিক আর কোন …

Leave a Reply