জোড়া ঘূর্ণাবর্তের জের, সারাদিন ভারী বৃষ্টিতে ভাসবে বাংলার এই সমস্ত জেলা

রাজ্যে ইতিমধ্যেই বর্ষা প্রবেশ করে গিয়েছে এবং আগামী বেশ কয়েক দিন ধরে এই বর্ষার প্রভাবে বৃষ্টিপাত চলবে গত বেশ কয়েকদিন হলো বাংলায় একেবারে পুরোদমে প্রবেশ করে কাছে বর্ষা। বেশ কয়েকদিন ধরে লাগাতার বৃষ্টি চলছে উত্তরবঙ্গ দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে। তার মধ্যেই মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে বঙ্গের উপরে কার্যকরী রয়েছে ঘূর্ণাবর্ত।

এই পরিস্থিতিতে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে কলকাতায়। সপ্তাহের শুরুতেই ভারী বৃষ্টিতে ভিজতে চলেছে তিলোত্তমা। বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকছে পশ্চিমবঙ্গে। আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর জানিয়ে দিয়েছে, এই বৃষ্টির জেরে সপ্তাহের শুরু থেকেই তাপমাত্রা নিম্নগামী হবে সারা পশ্চিমবঙ্গের।

সোমবার সকাল থেকেই আকাশের মুখ ভার। ইতিমধ্যেই বেশ কয়েক জায়গায় বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হয়েছে। আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে উত্তর এবং দক্ষিণ দুই বঙ্গেই ভারী বৃষ্টিপাত হওয়ার সম্ভাবনা আজকে। শুধু আজকে নয় আগামী ৬ দিন পর্যন্ত ঠিক একইভাবে বৃষ্টিপাত চলবে।

জোড়া ঘূর্ণাবর্ত এবং মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে বৃষ্টিপাত চলছে। তার পাশাপাশি উত্তর প্রদেশ থেকে বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত একটি নিম্নচাপ অক্ষরেখা বিস্তৃত হয়েছে। ফলে তার প্রভাবে দক্ষিণবঙ্গে লাগাতার বৃষ্টিপাত চলছে। গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের উপর দিয়ে এই নিম্নচাপ অক্ষরেখা প্রবেশ করেছে, অন্যদিকে বাংলাদেশ সংলগ্ন গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের উপর আরো একটি ঘূর্ণাবর্ত রয়েছে।

ফলে জোড়া ঘূর্ণাবর্তের প্রভাবে লাগাতার বৃষ্টি চলবে সারা পশ্চিমবঙ্গে। অন্যদিকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত বৃষ্টি হবার সম্ভাবনা উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার, উত্তর দিনাজপুর, দক্ষিণ দিনাজপুর এবং মালদহে। অন্যদিকে দক্ষিণবঙ্গের মধ্যে উত্তর এবং দক্ষিণ দুই ২৪ পরগনা,-

পশ্চিম মেদিনীপুর, পূর্ব মেদিনীপুর, হাওড়া, কলকাতা, হুগলি, বাঁকুড়া, পূর্ব এবং পশ্চিম বর্ধমান এবং মুর্শিদাবাদে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। অন্যদিকে বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকছে কলকাতায়। আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে খবর সোমবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকবে ২৯ ডিগ্রী সেলসিয়াসের কাছাকাছি। অন্যদিকে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে ২৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

এছাড়াও পড়ুন

ধেয়ে আসছে ‘আমফান’-এর থেকেও বিধ্বংসী ঘূর্ণিঝড়, টানা ১৪ ঘণ্টা চলবে ভয়ঙ্কর তাণ্ডব!

পাতাঝড়ার মরশুমে নাকাল রাজ্যবাসী যখন পশ্চিমী ঝঞ্ঝার জেরে শীতের আমেজ উপভোগ না করতে পারায় জেরবার …

Leave a Reply