লিচুর স্বাদ ও আসল গুন ঠিক রেখে ১ বছর পর্যন্ত সংরক্ষণ করুন এই পদ্ধতিতে, বিস্তারিত প্রতিবেদন!

নিজস্ব প্রতিবেদন: লিচু একটি মৌসুমী ফল।স্বাদ এবং পুষ্টি গুনাগুন এর দিক দিয়ে অতুলনীয়। কিন্তু এটি মৌসুমী ফল হওয়ায় বৎসরে হাতেগোনা অল্প কয়েকদিনের বেশি সচরাচর মিলেনা। লিচুর মৌসুমে আমাদের দেশে প্রায় সব অঞ্চলেই লিচু পাওয়া যায়।লিচু খায় না এমন মানুষ খুব কমই পাওয়া যাবে। লিচু এমন একটি ফল যা সকলেই কম বেশি পছন্দ করে। এই ফলটি খুব জনপ্রিয় হওয়ায় মৌসুমেও ফলটির দাম খুব চড়া থাকে।

আমরা ইন্টারনেটের প্রতিনিয়তই ফলমূল,সবজি ইত্যাদি কিভাবে দীর্ঘদিন সংরক্ষণ করা যায় এগুলোর ভিডিও কিংবা বিভিন্ন কৌশল খুব সহজেই পেয়ে থাকি। আজকের এই ভিডিওটিতে দেখানো হয়েছে কিভাবে লিচু সংরক্ষণ করলে 6 মাস থেকে 1 বছর পর্যন্ত স্বাদ এর গুনাগুন ঠিক থাকবে। এবং তা পরবর্তী মৌসুমের পূর্ব পর্যন্ত খুব সহজেই পেতে পারেন। এ পদ্ধতিটি খুব সহজ এবং তার ঘরোয়া পদ্ধতিতে সংরক্ষণ করতে পারেন। এবং এই পদ্ধতিতে কোন প্রকার মেডিসিন ব্যবহার ছাড়াই সংরক্ষণ করা যায় এবং যা খাওয়ার ফলে কোন প্রকার স্বাস্থ্য ঝুঁকি থাকে না।

সংরক্ষণ প্রণালী: সংরক্ষণের জন্য তাজা, পাকা, এবং পরিষ্কার লিচু নির্বাচন করতে হবে। প্রথমে লিচুগুলো ডাটি সহ থোকা থেকে ছিড়ে দিতে হবে। কোনমতেই ফাটা,ছ্যাচা ও পোকা খাওয়া লিচু সংরক্ষণের উপযোগী নয়। তাই এগুলো কে বেছে আলাদা করে নিতে হবে। এবং তা কমপক্ষে 10 থেকে 20 মিনিট ধরে পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হবে। কেননা বাজারে বিক্রিত ফলমূলের মধ্যে বিভিন্ন প্রকার রাসায়নিক পদার্থ মিশ্রিত থাকে। পানিতে ভিজিয়ে রাখার মাধ্যমে এই মিশ্রিত রাসায়নিক পদার্থগুলো আলাদা করা সম্ভব।

তাই ভালো ফলাফলের জন্য 10 থেকে 20 মিনিট পানিতে ভিজিয়ে রাখাই উত্তম।তারপর পানি থেকে উঠিয়ে কাপড় কিংবা ফ্যানের বাতাস এর মাধ্যমে ভালো করে শুকিয়ে নিতে হবে। এমনভাবে শুকাতে হবে যেন এর উপরিভাগে পানি না থাকে। তারপর এগুলোকে প্যাকিং করতে হবে। সংরক্ষণের জন্য দুইভাবে প্যাকিং করা যায়। নিম্নে তা আলোচনা করা হলো: প্রথম পদ্ধতিতে প্যাকিং করতে ছোট একটি বক্স এর প্রয়োজন।বক্সের মধ্যে শুকনো লিচু সমূহ সারিবদ্ধ ভাবে সাজিয়ে রাখতে হবে।

বেশি ঘনও করা যাবে না এবং বেশি পাতলাও করা যাবে না। তারপর বক্সের ঢাকনা ভালো করে লাগিয়ে দিতে হবে। দ্বিতীয় পদ্ধতিতে সংরক্ষণ করতে একটি পলিথিন ব্যাগ এর প্রয়োজন। প্রথমে শুকনো লিচুগুলো কে একটি পলিথিন ব্যাগে নিয়ে পলিথিন টি বায়ুশূন্য করে ভালো করে মুখ বেঁধে নিতে হবে। এমন ভাবে বেঁধে নিতে হবে যেন এর ভিতরে বাহিরের বাতাস প্রবেশ করতে না পারে। পরে ওই ব্যাগটি আরেকটি টিস্যু ব্যাগের ভিতর ঢুকিয়ে ভালো করে পেঁচিয়ে নিতে হবে।

পরবর্তী ধাপে লিচু সমূহকে ফ্রিজের ভিতরে সংরক্ষণ করবে। 7 থেকে 10 দিনের জন্য সংরক্ষণ করলে তা ফ্রিজের নরমালে সংরক্ষণ করলেই চলবে। কিন্তু তা যদি দীর্ঘ সময় অর্থাৎ 6 মাস থেকে 1 বছরের জন্য সংরক্ষণ করতে চান তাহলে লিচু সমূহকে ডিপে সংরক্ষণ করতে হবে। তবে বেশি দীর্ঘসময়ের সংরক্ষণ না করাটাই উত্তম। তবে আমরা কিছু কিছু সময় মৌসুম শেষ হওয়ার অনেকদিন পর পর্যন্তও বাজারে বিভিন্ন ফলমূল পাওয়া যায়।

এগুলো বিভিন্ন রাসায়নিক পদার্থ দ্বারা সংরক্ষণ করা হয়ে থাকে। যা মানব স্বাস্থ্যের জন্য অনেক ক্ষতিকারক। আমাদের প্রত্যেকের উচিত রাসায়নিক পদার্থ দ্বারা সংরক্ষিত ফলমূল বর্জন করা করা। প্রাকৃতিক উপায়ে ফলমূল সংরক্ষন করার এরকম শত শত ভিডিও ইউটিউবে সচরাচর পাওয়া যায়। যেগুলোর মাধ্যমে আমরা ফলমূল-সবজি ইত্যাদি সমূহ প্রাকৃতিকভাবেই অনেকদিন পর্যন্ত সংরক্ষণ করতে পারি। উক্ত পদ্ধতিতে অনেকদিন পর্যন্ত লিচু সংরক্ষণ করতে না টেনে পুরো ভিডিওটি দেখার অনুরোধ রইলো।

বিস্তারিত ভিডিওতে দেখুনঃ

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

এছাড়াও পড়ুন

মাছ ধরতে গিয়ে বিপাকে পড়ল সুন্দরী যুবতী, অনেক চেষ্টা করে বেচে ফিরল, তুমুল ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন: সোশ্যাল মিডিয়ায় আসার পর থেকে এর প্রতি মানুষের ঝোঁক বাড়ছে। কাজে-অকাজে মানুষ সোশ্যাল …

Leave a Reply