মার্বেলের ফ্লোর ক্লিন করার সহজ উপায়

নিজের রুচিশীলতা প্রকাশে আর বাড়ির সাজসজ্জা বাড়াতে আমরা অনেকেই ঘরে মার্বেলের তৈরি ফ্লোর করে থাকি। এটি গরমে যেমন ঘরকে ঠান্ডা রাখে তেমনি শীতে অত বেশি ঠান্ডা হয় না। তাই আজকাল সবারই পছন্দ মার্বেলের ফ্লোর। শুধু ফ্লোর তৈরি করলেই তো হয় না, রাখতে হয় পরিষ্কারও। নয়ত সজ্জা তো ফুটে উঠবে না। তাই নিয়মিতই পরিষ্কার রাখতে হয় মার্বেলের ফ্লোর।

কিন্তু এই মার্বেলের ফ্লোর আবার অন্যান্য ফ্লোরের মত যেনতেন ভাবে পরিষ্কার করা যায় না। একটু সময় আর যত্ন নিয়ে পরিষ্কার করতে হয়। অনেকেই আবার অন্যের মুখে শুনে শুনে এটাসেটা দিয়ে পরিষ্কার করতে গিয়ে মার্বেলের ফ্লোরের উজ্জ্বলতা কমিয়ে ফেলেন, ভালো রাখতে যেয়ে উল্টো ক্ষতি করে বসেন। মার্বেল ফ্লোর ক্লিন করার ঘরোয়া উপায়ঃ প্রথমেই ঘরের ফ্লোর ভালো মত ঝাড়ু দিয়ে আলগা ধুলো, ময়লা ঝেড়ে পরিষ্কার করে ফেলুন। সম্ভব হলে নিয়ম করে প্রতিদিন দুই বার ঝাড়ু দিন। এতে ময়লা ফ্লোরে বসে যাবে না এবং পরবর্তীতে পরিষ্কার করতে কষ্ট কম হবে।

বেকিং সোডাঃ বেকিং সোডা কিন্তু খুব ভালো ক্লিনজার। এক বালতি পরিমান পানি গরম করে নিন। এতে তিন চামচ বেকিং সোডা মিশিয়ে ফেলুন। এবার এক টুকরো সুতি কাপড় এই সোডা মেশানো গরম পানিতে ভিজিয়ে মার্বেলের ফ্লোর মুছে ফেলুন। পরিষ্কার হয়ে যাবে সহজেই। সপ্তাহে অন্তত দুই বার এভাবে ফ্লোর মুছুন। মার্বেলের ফ্লোর একদম চকচক করবে।

ডিসওয়াশঃ ডিসওয়াশ যে শুধু হাড়ি পাতিলই পরিষ্কার করবে তা কিন্তু নয়। মার্বেলের ফ্লোরের ময়লা দাগ দূর করতেও এটি কার্যকরী। একটা স্প্রে মেশিনে এক লিটার পানিতে এক চামচ ডিসওয়াশ মিশিয়ে মার্বেলের ফ্লোরের উপর স্প্রে করে দিন। এবার নরম সুতির কাপড় পানিতে ভিজিয়ে মুছে ফেলুন। মার্বেলের কোনো রকম ক্ষতি না করেই ডিসওয়াশ দাগ, ময়লা সব তুলে ফেলবে। ফ্লোরটাও দেখা যাবে উজ্জ্বল।

শ্যাম্পুঃ মার্বেলের ফ্লোরে মাঝে মাঝে দাগ বেশ শক্ত হয়ে বসে যায়। এই কঠিন দাগ দূর করবে শ্যাম্পু। এক বালতি কুসুম গরম পানিতে শ্যাম্পুর দুটি মিনি প্যাক গুলিয়ে নিন। এবার গেঞ্জির কাপড় দিয়ে একটু ভেজা ভেজা করে ফ্লোর মুছে নিন। এরপর পানি পাল্টে স্বাভাবিক পানিতে সুতি কাপড় ভিজিয়ে আরেকবা মুছে ফেলুন। নিমিষেই দাগ গায়েব হয়ে যাবে।

ডিটারজেন্টঃ অনেক সময় মার্বেলের ফ্লোরে চা, কফি বা তরকারির ঝোল পরে দাগ বসে যায়। কোনোভাবেই এই দাগ তুলতে পারছেন না? দাগের উপরের ফ্লোরটুকু ভিজিয়ে তাতে ডিটারজেন্টের গুড়ো ছড়িয়ে দিন। দশ মিনিট পর সুতি কাপড় দিয়ে মুছে নিন। দেখবেন দাগ চলে গেছে। ফ্লোরের রংটাও নষ্ট হয়নি।

তারপিন তেলঃ সাদা কিংবা অফ হোয়াইট রঙের মার্বেল পাথরগুলোতে তৈরি ফ্লোর অনেক দিন ব্যবহার করলে কেমন যেন হলদে হয়ে যায়, উজ্জ্বলতা কমে যায়। এই সমস্যার সমাধান করবে তারপিন তেল। তারপিন তেলে কয়েক চিমটি লবণ দিন। এতে ছোট ফোমের টুকরা ভিজিয়ে মার্বেলের ফ্লোর মুছে নিন। আগের মতন সাদা হয়ে উজ্জ্বলতা ফিরে আসবে।

লবণঃ অনেক দিন ব্যবহারের ফলে প্রায়ই মার্বেলের ফ্লোর কেমন যেন আঠালো হয়ে যায়। এই আঠালো ভাব দূর করবে লবণ। আধ বালতি গরম পানিতে লবন পাঁচ চামচ লবণ গুলে নিন। এবার এই পানিতে একটু আলতো হাতে ঘসে ঘষে ফ্লোর মুছে ফেলুন। দেখবেন আঠালো ভাব চলে গিয়েছে।

বোরিক পাউডারঃ অনেক মার্বেলের মেঝেতে ছোপ ছোপ লালচে দাগ পরে। এই দাগ নিয়ে চিন্তার কারন নেই। এক প্যাকেট বোরিক পাউডার কিনে আনুন। বাজারে কিংবা বাড়ির পাশের ফার্মেসীতেই পাবেন এই বোরিক পাউডার। এক মগ পরিমান পানিতে বোরিক পাউডার গুলে তাতে ফোম ভিজিয়ে ঐ লালচে দাগে উপর ঘষে নিন। ব্যাস, ছোপ ছোপ দাগ হয়ে যাবে উধাও।

আরো কিছু বিষয় লক্ষ্য রাখুনঃ লেবু/ভিনেগার/ব্লিচ/হাইড্রোজেন পারঅক্সাইড/সিরামিক ফ্লোর ক্লিনার এসব দিয়ে মার্বেলের ফ্লোর পরিষ্কার করতে যাবেন না। এতে মার্বেলের ফ্লোরের উজ্জ্বলতা কমে যায় ও ক্ষয় হয়ে যায়।
অতিরিক্ত গরম বা ফুটন্ত জল যেন মার্বেলের ফ্লোরে না পরে সেদিকে খেয়াল রাখুন। অনেক এলাকার পানিতে আয়রনের পরিমান বেশি থাকে। দীর্ঘদিন এই পানিতে ঘর মুছলে মার্বেলের ফ্লোর হলদেটে হয়ে যায়। তাই নির্দিষ্ট বিরতিতে ফ্লোর পলিশ করিয়ে নিন। দীর্ঘ দিনের জন্য বাড়িতে না থাকলে ফ্লোরে কার্পেট বা প্লাস্টিকের শিট পেতে রেখে যান। এতে ধুলো, ময়লা সরাসরি ফ্লোরে পরবে না।

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

এছাড়াও পড়ুন

জীবনে সুখী হতে চাইলে যে ৪টি বিষয়ে কখনো মুখ খুলবেন না

জীবনে সুখী হতে চাইলে যে ৪টি বিষয়ে কখনো মুখ খুলবেন না – পুরোটাই যে এমনটা …

Leave a Reply