পান্তা ভাতের ১১টি উপকারিতা জানুন!

পান্তা ভাতের উপকারিতা : বাঙ্গালীর ঐতিহ্যবাহী একটি খাবার পান্তা ভাত যা যুগ যুগ ধরেই বাঙ্গালী খেয়ে আসছে। তবে এর উপকারিতা সম্পর্কে অনেকেই অবগত নয়। তাই আজ আমরা জানবো পান্তা ভাতের উপকারিতা এবং এর পুষ্টিগুণ সম্পর্কে।

পান্তা ভাতের উপকারিতা সাধারণ ভাতের চেয়ে পান্তা ভাতের গুনাগুণ বেশি। এতে রয়েছে ক্যালসিয়াম, জিঙ্ক, আয়রন, ফসফরাস, ম্যাগনেসিয়াম, পটাশিয়াম এবং ভিটামিন বি যা শরীরের জন্য অত্যন্ত উপকারী। পান্তাভাতে যেসব পুষ্টিকর উপাদান রয়েছে তা আমাদের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে সাহায্য করে। চলুন তাহলে জেনে নেয়া যাক পান্তা ভাতের উপকারিতা ও এর বিভিন্ন গুণাগুণ সম্পর্কে।

১. দ্রুত শক্তি জোগায়
পান্তা ভাতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে কার্বোহাইড্রেট যা আমাদের শরীরে দ্রুত শক্তি সরবরাহ করে থাকে। পান্তা ভাত খাওয়ার ফলে দীর্ঘক্ষণ পেট ভরা থাকে। যেকোনো বয়সের মানুষ অনায়াসেই পান্তা ভাত খেতে পারে।

২. রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়
পান্তা ভাত স্বাস্থ্যের জন্য অনেক উপকারী। পান্তা ভাতে বিদ্যমান পুষ্টিকর উপাদান গুলি আমাদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে থাকে।

৩. হাড় শক্ত করে
পান্তা ভাতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ক্যালসিয়াম ও পটাশিয়াম । ক্যালসিয়াম হাড় গঠনে সহায়তা করে আর পটাশিয়াম হাড়কে মজবুত করে। তাই নিয়মিত পান্তা ভাত খেলে হাড় শক্ত হয়।

৪. শরীর সতেজ রাখে
পান্তা ভাত শরীরকে সতেজ রাখে। কারণ আমাদের শরীরে যে অম্ল ও ক্ষার রয়েছে তার সমতা রক্ষা করতে পান্তা ভাতের জুড়ি নেই। পান্তা ভাত শরীরের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে ফলে দেহ ঠান্ডা থাকে এবং শরীরকে কর্মক্ষম করে তোলে।

৫. রক্তে অক্সিজেন বৃদ্ধি করে
রক্তে অক্সিজেন বৃদ্ধি করতে সাহায্য করতেও পান্তা ভাতের ভূমিকা রয়েছে। কেননা এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ আয়রন। এই আয়রন আমাদের দেহের রক্তে অক্সিজেনের মাত্রা বৃদ্ধি করে থাকে।

৬. ক্যান্সার প্রতিরোধ করে
আপনি জেনে অবাক হবেন যে পান্তা ভাত ক্যান্সার প্রতিরোধে সাহায্য করে থাকে। এর মেটাবলাইটস উপাদান ক্যান্সার সৃষ্টিকারী কোষকে বাধা প্রদান করে। ফলে নিয়মিত পান্তা ভাত খেলে ক্যান্সার হওয়ার আশংকা থাকে না।

৭. শরীরে প্রদাহ কমায়
পান্তা ভাত শরীরে প্রদাহ কমায়। পান্তা ভাতে রয়েছে বিটা-সিটোস্টেরল যা শরীরকে প্রদাহ বা যন্ত্রণা থেকে মুক্তি দেয়। এছাড়াও অতিরিক্ত গরমে পান্তা খেলে শরীর ঠান্ডা থাকে এবং রক্তচাপ কমে। ভাতের মাড়ের অজানা ১০ উপকারিতা জানুন!

৮. রক্ত তৈরি করে
পান্তা ভাত আয়রনের একটি অন্যতম উৎস। বয়ঃসন্ধিকালে মেয়েদের আয়রনের অভাবজনিত বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয়। পান্তা ভাত খাওয়ার ফলে শরীরে রক্ত তৈরি হয়। প্রতি একশ গ্রাম পান্তা ভাতে ৩.৪ থেকে ৭৩.৯১ মিলিগ্রাম লৌহ বা আয়রন থাকে। ফলে যাদের রক্তস্বল্পতা আছে তারা পান্তা ভাত খেতে পারেন।

৯. ক্যালসিয়ামের ঘাটতি পূরণ করে
বর্তমানে ক্যালসিয়ামের অভাব জনিত রোগ ব্যাপক হারে দেখা দিয়েছে। বিশেষ করে মহিলাদের মধ্যে এ সমস্যা দেখা যায়। পান্তা ভাতে প্রচুর পরিমাণ ক্যালসিয়াম থাকে। তাই যারা দেহে ক্যালসিয়ামের অভাবে ভুগছেন অথবা হাড়ক্ষয় রোগে ভুগছেন তারা নিয়মিত পান্তা ভাত খাওয়া শুরু করতে পারেন।

১০. পানিশুন্যতা পুরণে
ভাতকে সারারাত পানিতে ভিজিয়ে তৈরি হয় পান্তা ভাত। তাই পান্তা ভাত দেহে পর্যন্ত পরিমাণে পানি সরবরাহ করতে পারে। এভাবেই পান্তা ভাত শরীরে পানিশুন্যতা পুরনে সহায়তা করে। এছাড়াও পান্তা ভাত খেলে সান-স্ট্রোক বা হিট-স্ট্রোকের হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।

১১. স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী
স্বাস্থ্য ভালো রাখতে পান্তা ভাতের উপকারিতা রয়েছে। পান্তা ভাতে ল্যাকটিক এসিড নামক এক প্রকার ব্যাক্টেরিয়া থাকে যা আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত উপকারী। পান্তা ভাতের পুষ্টিগুণ পান্তা ভাত পুষ্টিগুণে সমৃদ্ধ। এতে বিদ্যমান আয়রন, ক্যালসিয়াম, পটাশিয়াম সহ রয়েছে নানা খনিজ উপাদান যা আমাদের দেহের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। গরম ভাতের চেয়ে পান্তা ভাতে পুষ্টি বেশি। কারণ পান্তা ভাত দ্রুত হজম হয় এবং সোডিয়ামের পরিমাণ কম থাকায় রক্তচাপ স্বাভাবিক থাকে । পান্তা ভাত গ্যাষ্ট্রিক রোগীদের জন্যও উপকারী।

ভাত পানি দিয়ে ভিজিয়ে রাখার কারণে গাজনকারী ব্যাক্টেরিয়া ল্যাকটিক এসিড তৈরি করে ফলে ভাতের অম্লত্ব বাড়ে। ফলে ক্ষতিকারক ব্যাক্টেরিয়া ও ছত্রাক পান্তা ভাত নষ্ট করতে পারে না। গবেষণায় দেখা গেছে,গরম ভাতের তুলনায় পান্তা ভাতে ক্যালসিয়াম, পটাশিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম ইত্যাদি খনিজ উপাদানগুলি বৃদ্ধি পায়। এছাড়াও পান্তা ভাতে যে ব্যাক্টেরিয়াগুলো তৈরি হয় তা আমাদের শরীরের জন্য অত্যন্ত উপকারী।

পান্তা ভাতের অপকারিতা সাধারণ কয়েকটি বিষয় খেয়াল না রাখলে পান্তা ভাত আমাদের শরীরের জন্য অপকারি হতে পারে। চলুন জেনে নিই বিষয়গুলি কী কী। পান্তা ভাত বিশুদ্ধ পানি দিয়ে না ভিজালে তাতে ক্ষতিকর ব্যাক্টেরিয়া তৈরি হয়। যা খাওয়ার ফলে শরীর অসুস্থ হতে পারে। ১২ ঘন্টার বেশি পান্তা ভাত ভিজিয়ে রাখলে তাতে অ্যালকোহল তৈরি হয় যা খেলে ঘুম আসে এবং শরীর ম্যাজ ম্যাজ করে।

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

এছাড়াও পড়ুন

বাবা-মায়ের এই আচরন গুলি শেষ করে দিতে পারে সন্তাদের ভবিষ্যৎ

পৃথিবীতে অনেক কঠিন কাজ আছে, তার মধ্যে অন্যতম কঠিন একটি কাজ হলো সন্তান লালন-পালন। সন্তানের …

Leave a Reply