পরিস্থিতি অনুকূলই, শুক্রবারও ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা রাজ্য জুড়ে

বুধবারের পর বৃহস্পতিবারও রাজ্যের কিছু জায়গায় ঝড়বৃষ্টি হয়েছে। বিশেষত অযোধ্যা পাহাড় এলাকা ফের একবার ঝড়বৃষ্টিতে ভিজেছে। স্বস্তির খবর হল রাজ্যের আবহাওয়ার পরিস্থিতি এখনও ঝড়বৃষ্টির জন্য অনুকূলই রয়েছে। শুক্রবারও বিকেলের দিকে ঝড়বৃষ্টি ‘হতে পারে। শনিবারও এই সম্ভাবনা রয়েছে।

এই মুহূর্তে পূর্ব ভারতের ওপরে একটি সংমিশ্রণের অঞ্চল তৈরি হয়েছে। শীতল উত্তুরে বাতাসের স’ঙ্গে সংমিশ্রণ ঘটছে ব’ঙ্গো’পসাগর থেকে ধেয়ে যাওয়া জলীয় বাষ্প মিশ্রিত উষ্ণ বাতাস। গত দু’স’প্ত াহ ধরে ছোটোনাগপুর মালভূমি অঞ্চল এবং এ রাজ্যের পুরুলিয়া-বাঁকুড়া প্রবল গরমে পুড়েছে। এর ফলেই ঝড়বৃষ্টির পরিস্থিতি অনুকূল রয়েছে রাজ্যে।

উল্লেখ্য, বুধবার উত্তরব’ঙ্গের পাশাপাশি জোর ঝড়বৃষ্টি হয়েছে দক্ষিণব’ঙ্গেও। পুরুলিয়া, বাঁকুড়ায় ঝড়বৃষ্টির দাপট অনেক বেশি ছিল। যদিও কলকাতা এবং পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে বৃষ্টি হয়েছে ছিটেফোঁটা। এর পর বৃহস্পতিবারও পুরুলিয়া-বাঁকুড়ার বিক্ষি’প্ত কিছু জায়গায় ঝড়বৃষ্টি হয়।

তবে বৃষ্টি হলেও বৃহস্পতিবার থেকে এ দিন সর্বনিম্ন তাপমাত্রা কিছুটা বেড়েছে। খুব কম জায়গাতেই এ দিন সর্বনিম্ন তাপমাত্রা কুড়ি ডিগ্রির কম ছিল। মনে করা হচ্ছে, শনিবারের পর রাজ্যের পশ্চিমাঞ্চলে ফের কিছুটা ঠান্ডা ঠান্ডা ভাব ফিরতে পারে। কুড়ির নীচে নামতে পারে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা।

আশা করা যায় শুক্রবার সন্ধ্যায় ঝড়বৃষ্টির স্বাদ পেতে পারে কলকাতাও। তবে কালবৈশাখীর মতো দাপট নিয়ে ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা এখনই নেই। শহরে এখনও সে ভাবে গরম না পড়লেও বৃষ্টি হলে আবহাওয়া যে আরও মনোরম হয়ে উঠবে তা বলাই বাহুল্য।

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

এছাড়াও পড়ুন

ধেয়ে আসছে ‘আমফান’-এর থেকেও বিধ্বংসী ঘূর্ণিঝড়, টানা ১৪ ঘণ্টা চলবে ভয়ঙ্কর তাণ্ডব!

পাতাঝড়ার মরশুমে নাকাল রাজ্যবাসী যখন পশ্চিমী ঝঞ্ঝার জেরে শীতের আমেজ উপভোগ না করতে পারায় জেরবার …

Leave a Reply