কিনতে যেতে হবে না, বাড়ির সাধারণ পাত্রে লাগান এলাচ, খেয়াল রাখুন ৩ টি বিষয়

বাড়িতে সৌন্দর্য বৃদ্ধি করার জন্য বেশিরভাগ মানুষ বাড়িতে শোভাময় গাছ লাগাতে পছন্দ করেন। তবে বাড়িতে যদি দরকারই বা প্রয়োজনীয় গাছগুলো লাগানো হয়, তাহলে আপনারই অনেক সুবিধা হবে। আজ এমন একটি উদ্ভিদ সম্পর্কে আপনাকে তথ্য দেব, সেই উদ্ভিদটি খুবই নিত্যপ্রয়োজনীয় সবার জন্য। আসুন বিস্তারিত জেনে নিন।

আপনাদের এলাচ গাছের কথা বলছি। এলাচ সুস্বাদু খাবার বানাতে তৈরি করে। খাবারে তৈরিতে এলাচ দিলে রান্নাটি খুবই সুগন্ধ যুক্ত হয়। আর এলাচ গাছটি খুব বড় হয় না। একটি পাত্রে আপনি গাছটি চাষ করতে পারবেন। এই গাছের বীজ বাজার থেকেও যেমন পাওয়া যায়, তেমনি অনলাইনে থেকেও আপনি অর্ডার করতে পারবেন। বাজারের মুদিখানা দোকানে আপনি পেয়ে যাবেন। নতুন বীজ লাগিয়ে আপনি এলাচ গাছটি বাড়াতে পারবেন। তবে কতগুলো জিনিস আপনাকে মাথায় রাখতে হবে, আসুন জেনে নিন সেগুলি।

এই গাছের বীজ একটি বায়ুরোধী পাত্রে প্যাক করে সারারাত ভিজিয়ে রাখতে হবে। বাজারে থেকে আপনি বীজ কিনে এনে, সেখান থেকেই আপনাকে চারা বের করতে হবে। একটা পাত্রের মধ্যে একটা চামচে বীজ জলের মধ্যে ভিজিয়ে রাখুন। ওই পাত্রে কালো এবং লাল মাটি মেশাতে হবে। যদি কালো বা লালমাটি নামে সাথে চান, তাহলে গোবর বা কোকোপিট ব্যবহার করতে পারবেন।

তবে আপনাকে অবশ্যই লক্ষ্য রাখতে হবে, মাটিতে যেন পোকামাকর না থাকে। না হলে গাছের বৃদ্ধিতে বাধা দেবে। প্রতিদিনই জল দিতে হবে। বীজ অঙ্কুরিত হতে প্রায় ৬ দিন সময় লাগবে। সমস্ত জিনিসটাই বীজের ওপর নির্ভর করবে। সকাল সন্ধ্যে সঠিক পরিমাণ জল দিতে হবে। যতক্ষণ না বীজ অঙ্কুরিত হচ্ছে, ততক্ষণ খুবই যত্ন নিতে হবে। ১ মাস পর থেকেই লক্ষ্য করবেন গাছটি আসতে আসতে বেড়ে উঠছে। এভাবেই ঘরে এলাচ চাষ করা সম্ভব হয়।

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

এছাড়াও পড়ুন

জেনে নিন হাঁটার নানাবিধ উপকারিতা সমহ!

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে হাঁটার উপকারিতা জানা থাকলেও আলসেমি ও ব্যস্ততার কারণে অনেকেই হাঁটাহাঁটি এড়িয়ে চলেন। …